• Archives

  • If Bengali font doesnt come,

    Click Here

    to download bangla font and copy to font folder to display this page properly.

Swarthopor Sarbonaam


স্বার্থপর একটা সর্ব নাম


চালাক মা,ছোট খোকা,তার সাথে বাবা বোকা,

এই নিয়েইআমরা” ,

ফ্লাটে ঢোকে কাজের মাসী,অজিত কাকু মুখে হাসি,

দাদু এলে মুখ গোমড়া

ছোট খোকা বড় হল,’কাউন্টার অনেকে দিল‘;

নীতার মা বলে চ্যাংড়া;

পাশের ফ্লাটে নীতা থাকে,লাল টপটায় বেশ লাগে,

ব্যালকনিতে পাশাপাশি, ‘আমরা

চালাক নীতা,ছোট খোকা,তার সাথে আমি বোকা,

এই নিয়ে এখনআমরা

মা এখন কাজের মাসি,বাবার মুখে নেইকো হাসি,

তারা এখনতোমরা

ছোট খোকা সাগর পার,নীতার ছবিতে ফুলের হার,

আমার মুখ গোমড়া;

লাঠি হাতে একা চলি,মনে মনে শুধু বলি,

স্বার্থপর সর্বনামআমরা‘”

05/06/07

Banglar Baromas

বাংলা বারোমাস্যা

জানুয়ারী কে গরম করি, কাঁথা আর লেপে,

নিঊ ইয়ার হ্যাপী হল, গ্রীটিংস কার্ড দেখে

ফেব্রুয়ারী আগে পিছে ,ঠিক কিছুদিন পরে,

বাকদেবী আবার আসেন,হাঁসের পিঠে চড়ে

বসন্তের রং মার্চে গায়ে,হোলির আবীর মুখে,

মনে প্রানে রংএর মেলা, কোকিল ডাকে শাখে

নানা ফুলের মাঝে,এপ্রিল ফুল ফোটে,

১লা বৈশাখে নববর্ষে নূতন সূর্য্য ওঠে

মে মাস ভীষন গরম,কালবৈশাখী ,ঘাম,

মাথার উপর পাখা ঘোরে, মুখে পাকা আম

রথ হাতে জুন্আসে,সাথে মেঘ কালো

ছাতা কাদা জুলাই, ইলিশ খেতে ভাল

আগষ্টে স্বাধীন হইপনেরো প্রাতেঃ,

ভাই বোনের মধুর মিলন,রাখী সূতো হাতে

সেপ্টেম্বরে বিশ্বকর্মা, ছুটি ঘুড়ি নিয়ে,

পূজার গন্ধ ঘুরে বেরায়,কাশে দোলা দিয়ে

অক্টোবর আর নভেম্বর,ঢাকে কাঠি রেখে,

নূতন জামা,ভীষন মজা,প্রণাম মাকে দেখে

খুশি প্রদীপ জ্বালিয়ে রাখে,দীপাবলী আলো,

চাঁদের দেখা মিললে পরে,ঈদ মোবারক বল

ডিসেম্বরে কেক খেয়ে সাহেব হতে চাই,

তাড়াতাড়ি সন্ধে হলেও, বড়দিন তাই

Godhuli Bela

গোধূলি বেলা

সূর্য্যোদয় দেখেছিলাম সেই সকাল বেলা

মিস্টি রোদের সাথে হামাগুড়ি খেলা

হাঁট তে শিখে,দৌড়ে গেছি,

মেখেছি আলোর তেজ;

দুপুর বেলা ফুরিয়ে এল,

আজ আমি নিস্তেজ

ঈশান কোনের উলটো দিকে,

সূর্য্য চেয়ে থাকে,

এবার শুধু ফেরার পালা,

তবু,

ঝাপ্সা স্মৃতি ডাকে

গোধূলি বেলা,আঁধার রাতি,

ভয় পাই না আর,

রাতের পরেই ভোর হবে,

উঠবে,

নতুন সূর্য্য আবার।।

Ami Kolom

আমি কলম

আমি কলম

আমার রক্তে লেখা

তোমাদের অসভ্যতার ইতিবৃত্ত

আমার বজ্রকঠিন দেহে তৈরী

তোমাদের সভ্যতার ভিত

যুগ যুগ ধরে আমি লিখে চলেছি

রবীন্দ্রনাথকে নোবেল এনে দিয়েছি আমিই

E=mc2 এর ভয়াবহতা আমারই দান

আমিই পাশ করাই,আমিই পারি ফেল করাতে;

বাইবেল,কোরান আমারই লেখা,

লিখেছি যত নাস্তিকতার বুলি

মানুষের মধ্যে মানুষের জন্ম দিই

মৃত্যুদন্ড দিই বিচারকের সাথে

নিজের অস্তিত্বের বিনিময়ে

সভ্যতার আলো জ্বালাই

আলো নেভাই

সবই পারি

পারি দিস্তার পর দিস্তা লিখে যেতে

পারি না শুধু নিজে নিজে লিখতে

পুলক মন্ডল

১৯/০৮/২০০২

Follow

Get every new post delivered to your Inbox.